শুক্রবার, ২০ Jul ২০১৮, ০২:১৯ অপরাহ্ন

নোটিশ :
বাউফল নিউজ ওয়েবসাইটে আপনাদের স্বাগতম

আমরাও মানুষ!

রেজাউল করিম বাউফল নিউজ ডেস্কঃ চার বছরের শিশুর ধর্ষণকারীটার মতো আরও দুই তিনটা ক্রসফায়ারে দেন। যথেষ্ট এভিডেন্স থাকলে, আরও ছয় সাতটা ক্রসফায়ার করেন। কিন্তু ক্রসফায়ারকে ঠেকানোর সমাধান ভাইবেন না। যেমনটা অনেকে সমাধান ভাবেন, ‘শালীন পোশাক’।
ক্রসফায়ার? no need. সাধারণ লজিকটা বোঝার চেষ্টা করেন। তাহলে সমাধান কী? আগে সমস্যাটা বুঝি।
আমরা আমাদের দেশ এগিয়ে যাচ্ছে বলে গর্ব করি। দেশ আসলেই এগোচ্ছে। আমাদের জীবনের মান বেড়েছে। আমাদের অনেকের বাড়িতে সাদাকালো টিভিই ছিল না। এখন আমরা ৫২-৬২ ইঞ্চি টিভি কিনতে চাই। কিন্তু সত্যিটা হচ্ছে, আমাদের সাদাকালো সময়টাই ভালো ছিল। জীবনের মান বাড়ছে, আর ‘মানুষে’র মান কমছে। শরীরটাকেই আমরা গায়ে গতরে বাড়াচ্ছি। কিন্তু আমাদর মনটা দিনকে দিন ছোট হতে হতে এখন আর মন নেই।
সমাজটা ভেতরে ভেতরে ভাঙছে। বাইরে ফিটফাট, ভেতরে ঘুণের হাট। ঝড়ের মধ্যে পড়েছে আমাদের চেনা মধ্যবিত্ত মূল্যবোধের ওপর গড়ে ওঠা সমাজটা। পারিবারিক বন্ধনগুলো শিথিল হয়ে যাচ্ছে।
সবখানে পচন। শৈশবে দেখা সেই আদর্শবাদী শিক্ষক? কোথায় রাঘববোয়ালদের মুখোশ খুলে দেওয়ার মতো সাহসী সাংবাদিক? সেই নীতিবাদী আইনজীবী? নিজেকে উজাড় করে দেওয়া নিবেদিতপ্রাণ চিকিৎসক-প্রকৌশলী? নিঃস্বার্থপ্রাণ সংস্কৃতিকর্মী, সমাজের মনন তৈরি করা শিল্পী, লেখক?
সবখানে এখন সিস্টেম। সবখানে এখন শর্টকাট। সবখানে এখন ‘হায় হায় ও তিনটা ফ্ল্যাট কিনে ফেলল, আমি কী করলাম’-এর আক্ষেপ। এর মধ্যে আমি আছি, আপনি আছেন। আমরা সবাই আছি। আসেন সত্যিটা স্বীকার করি। সরল-সাদাসিধে-সৎ জীবনযাপন করে থাকা লোকেরা এই সমাজে এখন বোকা বলে পরিচিত।
এখনকার গুরুজনরাও এখন শিশুদের এই বলে দোয়া করেন, বড় হয়ে ডাক্তার হও, ইঞ্জিনিয়ার হও। আর আমাদের শৈশবে, আমাদের গুরুজনেরা দোয়া করেছেন, মানুষের মতো মানুষ হও।
ম্যান ইজ সোশ্যাল অ্যানিমেল। একটা সমাজ গড়ে ওঠে একটা ছোট বৃত্ত, তাকে ঘিরে থাকা আরেকটা বৃত্ত, তার বাইরে থাকা আরেকটা বৃত্ত দিয়ে। কোনো বৃত্ত ধর্ম, কোনো বৃত্ত সমাজটার ইতিহাস-ঐতিহ্য-সংস্কৃতি, কোনো বৃত্ত শিক্ষা-চিন্তা। তবে মাঝখানে সবচেয়ে ছোট বৃত্তটায় থাকে ভ্যালুজ। মূল্যবোধ। নীতি।
যে নীতি আমাদের অ্যানিমেল থেকে ম্যান বানায়। আমাদের ভেতরের পশুটাকে ধীরে ধীরে মেরে ফেলতে সাহায্য করে।
আমরা সমাজটা তৈরি করছি সবকিছু দিয়ে। শুধু মাঝখানে একেবারে ভেতরে থাকা সেই বৃত্তটাই যেন নেই!

মন+হুঁশ দুটোই হারিয়ে ফেলা একটা প্রাণীকে জন্তু বলতে পারেন, পশু বলতে পারেন; যা খুশি বলতে পারেন। কিন্তু মানুষ বলতে পারেন না।

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 Bauphalnews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com